বৃহস্পতি. ডিসে. 2nd, 2021

আফগানিস্তান ৬০ রানেই গুঁড়িয়ে দিল স্কটল্যান্ডকে

স্পোর্টস ডেস্ক :

বিশ্বকাপের প্রথম দিনেই বাংলাদেশকে হারিয়ে হৈচৈ ফেলে দিয়েছিল স্কটল্যান্ড। এখানেই শেষ নয়, ওমানে অনুষ্ঠিত প্রাথমিক রাউন্ডের ‘বি’ গ্রুপে থাকা পাপুয়া নিউগিনি, ওমানকে হারিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েই সুপার টুয়েলভে সুযোগ করে নিয়েছে তারা। সেই স্কটিশদের এবার মাটিতে নামিয়ে আনলো আফগানিস্তান। তাদের দেওয়া ১৯০ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে স্কটিশরা অলআউট মাত্র ৬০ রানেই। ফলে ১৩০ রানের বড় ব্যবধানে জয় পায় আফগানরা।

সোমবার (২৫ অক্টোবর) শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে এবারের আসরের সর্বোচ্চ ১৯০ রান সংগ্রহ করে আফগানিস্তান। জবাবে ব্যাট করতে নেমে জড়োগতির শুরু করলেও আফগানদের বোলিং তোপে বেশিক্ষণ থিতু হতে পারেনি স্কটিস ওপেনাররা। চতুর্থ ওভারে বল করতে এসেই স্কটিস অধিনায়ক কোয়েটজারকে ফেরান আফগান স্পিনার মুজিব উর রহমান। ব্যক্তিগত ১০ রান নিয়ে অধিনায়কের ফেরার পর খেয় হারিয়ে ফেলে স্কটল্যান্ড।

মুজিবের লেগ স্পিনে বিধ্বস্ত হয়ে একে একে উইকেট হারান ম্যাকলয়েড ও রিচি বেরিংটন। দু’জনই সাঝঘরে ফিরেন শূণ্য রানে। পরের ওভারে নাভিন উল হকের বলে শেহজাদের হাতে ক্যাচ তুলে উইকেট হারান ম্যাথিউ ক্রস। পরের ওভারে আবারও বল করতে এসে স্কটিসদের হয়ে সর্বোচ্চ রান কার জর্জ মুন্সেকে বোল্ড করেন মুজিব। ব্যক্তিগত ২৫ রান করে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন এই ব্যাটার।

ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়া স্কটল্যান্ড শিবিরে নিজের প্রথম ওভারেই আঘাত হানেন রশিদ খান। দারুণ এক গুগলিতে এলবিডব্লিউ করে মাইকেল লিস্ককে শূণ্য রানেই সাঝঘরে ফেরান এই স্পিনার। এরপর নিজের তৃতীয় ওভারে ফের উইকেট তুলে নেন মুজিব। মার্ক ওয়াটকে ফিরিয়ে ম্যাচে নিজের পঞ্চম উইকেট তুলে নেন তিনি। একইসাথে বিশ্বকাপে ক্যারিয়ার সেরা বোলিং ফিগারের কীর্তি গড়েন তিনি।

এরপর রশিদ খানের স্পিন ঘূর্ণিতে পরপর তিনটি উইকেট হারিয়ে ৬০ রানেই ইনিংসের ইতি ঘটায় স্কটল্যান্ড। ক্রিস গ্রিভস, জস ড্যাভে ও ব্র্যাড হুইলের উইকেট নিয়ে মাত্র ৯ রান খরচায় আফগানদের হয়ে সর্বোচ্চ ৪ উইকেট শিকার করেন আফগান এ লেগ স্পিনার।  

এর আগে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ব্যাটে আলো ছড়িয়েছেন আফগান দুই ওপেনার হযরতউল্লাহ জাজাই ও মোহাম্মদ শাহজাদ। তবে পাওয়ার প্লের শেষ মুহূর্তে এসে উইকেট হারান শাহজাদ। সাফিয়ান শরিফের বলে ক্রিস গ্রিভসের হাতে ক্যাচ তুলে দেন তিনি। ১ ছয় ও ২ চারে ব্যক্তিগত ২২ রান করে সাঝঘরে ফেরেন এ ব্যাটার। এরপর বিদায় নেন হযরতউল্লাহ জাজাইও। মার্ক ওয়াটের বলে বোল্ড আউট হয়ে উইকেট হারান তিনি। ৩ ছয় ও ৩ চারে ৩০ বলে ৪৪ রানের ইনিংস খেলেন এ ব্যাটার।

জাজাইয়ের বিদায়ের পর দলের হাল ধরেন রাহমানউল্লাহ গুরবাজ। তাকে সঙ্গ দিয়ে জড়ো ব্যাটিংয়ে দলকে বড় সংগ্রহের দিকে নিয়ে যান নাজিবউল্লাহ জাদরান। ৫২ বলে ৮৭ রানের জুটি গড়েন তারা। শেষদিকে এসে জসুয়া ড্যাভের বলে কোয়েটজারের হাতে ক্যাচ তুলে বিদায় নেন তিনি। ৪ ছয় ও ১ চারে ৩৭ বলে ৪৬ রান করেন এই ব্যাটার।

গুরবাজ ফিরে যাওয়ার পর মাত্র ৩০ বলে হাফসেঞ্চুরি তুলে নেন নাজিবউল্লাহ। তার ব্যাটে ভর করে শেষপর্যন্ত বিশ্বকাপে রেকর্ড সংগ্রহের দেখা পায় আফগানিস্তান। যদিও শেষদিকে শরিফের বলে উইকেট হারান তিনি। এর আগে ৩ ছয় ও ৫ চারে ৩৪ বলে ৫৯ রানের ইনিংস খেলেন এই ব্যাটার। ২ চারে ৪ বলে ১১ রান নিয়ে অপরাজিত থাকেন আফগান অধিনায়ক মোহাম্মদ নবী। স্কটল্যান্ডের পক্ষে ২টি উইকেট শিকার করেন শরিফ। বাকি ২টি উইকেট তুলে নেন জসুয়া ড্যাভে ও মার্ক ওয়াট।