বুধ. মে 31st, 2023

ইউপি নির্বাচনে নাগেশ্বরীতে ভোটের মাঠে সরব বিএনপি

নাগেশ্বরী, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি :

কেন্দ্রিয়ভাবে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দিলেও কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে মাঠ ছাড়েনি বিএনপি। তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিতব্য ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতায় অংশ নিচ্ছেন উপজেলা ও ইউনিয়ন বিএনপির বিভিন্ন পর্যায়ের বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী। আগামী ২৮ নভেম্বর উপজেলার ১৪ ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এতে আনুষ্ঠানিকভাবে আওয়ামী লীগ, জাতীয়পার্টি, বাংলাদেশ ইসলামী আন্দোলন দলীয় প্রার্থী ঘোষণা করেছে। কেন্দ্রিয়ভাবে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেয়ায় দলীয় প্রতীকে প্রার্থী দেয়নি বিএনপি। তবে তারা মাঠ ছেড়েও যায়নি।

১৪ ইউনিয়নের মধ্যে ৮টিতেই তারা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন নেওয়াশী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক এন্তাজ আলী, হাসনাবাদ ইউনিয়নের সদ্য সাবেক চেয়ারম্যান উপজেলা বিএনপি সম্পাদক গোলাম মওলা আজাদ বাবলু, কালীগঞ্জে ইউনিয়ন বিএনপির সদস্য রিয়াজুল হক, ভিতরবন্দ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান উপজেলা বিএনপির সাবেক সিনিয়র সহসভাপতি শফিউল আলম শফি ও ইউনিয়ন বিএনপি সম্পাদক আবুল হোসেন ব্যাপারী, নুনখাওয়ায় ইউনিয়ন বিএনপি সভাপতি তাজুল ইসলাম, নারায়ানপুরে রংপুর মহানগর বিএনপি সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান, কেদারে ইউনিয়ন বিএনপি সাংগাঠনিক সম্পাদক আনিছুর রহমান তোলা ব্যাপারী, সন্তোষপুরে ইউনিয়ন বিএনপি সদস্য আব্দুল মোত্তালেব। বিজয়ী হতে তারা জোরেশোরে চালাচ্ছেন প্রচার-প্রচারনা ও গণসংযোগ। তবে কচাকাটা, বল্লভেরখাস, বেরুবাড়ী, বামনডাঙ্গা, রায়গঞ্জ ও রামখানা ইউনিয়নে বিএনপির কেউ প্রার্থীতা করছেন না।

ভিতরবন্দ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান উপজেলা বিএনপির সাবেক সিনিয়র সহসভাপতি শফিউল আলম শফি জানান, তৈরি করা ভোটের মাঠ তিনি ছেড়ে দিতে চান না। তাই তিনি ভোটের লড়াইয়ে আছেন। প্রায় একই রকম কথা বলেন এ নির্বাচনে অংশ নেয়া বিএনপির অন্যান্য নেতা-কর্মীরা। উপজেলা বিএনপি সম্পাদক গোলাম মওলা আজাদ বাবলু জানান, কেন্দ্রিয় নির্দেশনা মেনে নাগেশ্বরীর ১৪ ইউনিয়নে দলীয় প্রার্থী দেয়নি বিএনপি। তবে তিনিসহ বেশ কয়েকজন ব্যাক্তিগতভাবে নিজ দায়-দায়িত্বে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। উল্লেখ্য ২৮ নভেম্বর তৃতীয় ধাপে নাগেশ্বরীর ১৪ ইউনিয়নসহ ১০০৭ ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ সময় ২ নভেম্বর, বাছাই ৪ নভেম্বর ও প্রত্যাহারের শেষ সময় ১১ নভেম্বর।