শনি. সেপ্টে. 24th, 2022

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত লাখ ছাড়াল

চীনে প্রথম দেখা দেওয়া প্রাণঘাতী নভেল করোনাভাইরাস বিশ্বের ৯০টির বেশি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়েছে, এই রোগে আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখ ছাড়িয়েছে বলে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে।

‘কভিড-১৯’ নাম পাওয়া রোগটিতে এরইমধ্যে ৩ হাজার ৪০০-এর বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে। শুক্রবার নতুন করে ছয়টি দেশে এই ভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়েছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলছে, নভেল করোনাভাইরাস সংক্রমণ বাড়তে থাকায় নাগরিকদের ঘরে থাকার পরামর্শ, স্কুল ব্ন্ধ, বড় ধরনের লোকসমাগম ও অনুষ্ঠান বাতিল, টয়লেট্রিজের মতো সামগ্রী, পানি ও মাস্ক কেনার হিড়িক এখন দেশে দেশে অভিন্ন চিত্র হয়ে দাঁড়িয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রজুড়েও এই ভাইরাস সংক্রমণ দেখা দিয়েছে, শুক্রবার অন্তত চারটি নতুন স্টেট ও সান ফ্রান্সিসকোতে নতুন করে রোগী শনাক্ত হয়েছে।

ক্যালিফোর্নিয়া উপকূলে করোনাভাইরাসের ভয়ে আটকে রাখা প্রমোদতরী গ্র্যান্ড প্রিন্সেসে আটকা পড়েছে ওই তরীতে থাকা সাড়ে তিন হাজার মানুষ।এই প্রমোদতরীর আগের সমুদ্রযাত্রায় এক যাত্রী মারা গেছেন এবং চারজন করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়েছিলেন।

প্রমোদতরীর যাত্রীদের মধ্যে অন্তত ৩৫ জনের ফ্লুর উপসর্গ দেওয়া দেওয়ায় সেটিকে সান ফ্রান্সিসকো বন্দরে ফিরতে দেওয়া হচ্ছে না। যাত্রীদের পরীক্ষা করার জন্য সাগরে থাকা এই প্রমোদ তরীতে কিট পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।

বিভিন্ন দেশের সরকারি কর্মকর্তা ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া তথ্য সংকলিত করে রয়টার্স বলছে, বিশ্বে নভেল করোনাভাইরাসে এক লাখ ৩০০ এর বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে মৃত্যুর হার ৩ থেকে ৪ শতাংশ, যা মৌসুমী ফ্লুর চেয়ে বেশি।

চীনের মূল ভূ-খণ্ডে এতে তিন হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন। তবে এখন চীনের চেয়ে অন্যান্য দেশে রোগটি দ্রুত ছড়াচ্ছে।

ইউরোপে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত দেশ ইতালিতে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা অন্তত ১৪৮ জনে পৌঁছেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের গণনায়ও নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখ ছাড়িয়েছে বলে সিএনএন জানিয়েছে।

শুক্রবার সকাল নাগাদ মোট আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখ ৩২৯ জন হয়েছে বলে জানিয়েছে তারা।

এদিন সিঙ্গাপুর নতুন ১৩ জনের এই ভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়ার কথা জানিয়েছে। দেশটিতে একদিনে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক এই রোগী শনাক্ত হওয়ার ঘটনা এটাই। আক্রান্তদের মধ্যে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের একজন কেবিন ক্রুও রয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রে নতুন করে অন্তত ৫৭ জনের নভেল করোনাভাইরাস ধরা পড়েছে। কলোরাডো, ম্যারিল্যান্ড, টেনেসি ও টেক্সাসে এবং ক্যালিফোর্নিয়ার সান ফ্রান্সিসকোতে প্রথমবারের মতো এই ভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়েছে। দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৩০ জনে, আর মৃত্যু হয়েছে ১২৩ জনের।

কয়েকজন ভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়ার পর গুগল, ফেইসবুক, আমাজন ও মাইক্রোসফট সিয়াটল এলাকার কর্মীদের বাসায় বসে কাজ করতে বলেছে। এর ফলে ওই এলাকার এক লাখের বেশি মানুষ আপাতত বাসা থেকে অফিস করবেন।

যুক্তরাষ্ট্রের সিনেট বৃহস্পতিবার নভেল করোনাভাইরাস মোকাবেলায় ৮.৩ বিলিয়ন ডলার বরাদ্দ করেছে।