রবি. সেপ্টে. 25th, 2022

কাউনিয়ায় শান্তিপূর্ণভাবে দূর্গোৎসব পালিত

নিজস্ব প্রতিনিধি:

সারা দেশের মতোই রংপুরের কাউনিয়া উপজেলাতে মহাষষ্ঠীর মধ্যদিয়ে পাঁচ দিনব্যাপী হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দূর্গোপূজা নানা আয়োজনে উৎসব মূখোর পরিবেশে শান্তিপূর্ন ভাবে পালিত হল।

প্রতিটি মন্ডপে মন্ডপে উলুধবনি, শঙ্খধবনি, ঢাক-ঢোলের আর উপবাস ও বিহিত পূজার মধ্যদিয়ে দেবী-দূর্গার আরধনা শুরু করে হিন্দু সম্প্রদায়রা। বাংলা পঞ্জিকা মতে, এ বছর মর্ত্যলোকে দেবীর আগমন ঘটছে ঘোটকে চড়ে। আবার দেবীর গমন ঘোটকে চড়ে।

উপজেলার বিভিন্ন পুজা মন্ডপে ঘুরে দেখা গেছে, রংবেরংয়ের আলোকসজ্জা, বিশাল আকৃতির প্যান্ডেল গেট, দেবী দুর্গার অলল্করণ ও সাজসজ্জায় মূখরিত হয়ে উঠে ছিলে প্রতিটি মন্ডপ। এছাড়াও বাঙালী হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের শতশত নারী-পুরুষ ও কিশোর-কিশোরীসহ সব বয়সী মানুষ দেবী দুর্গার চরণে প্রার্থনা ও দেবী দূর্গার চরণে সন্ধা থেকে উৎসব মূখর পরিবেশে আরতী পরিবেশন অনুষ্ঠিত হয়। একই সঙ্গে প্রতিটি হিন্দু পরিবারের মাঝে আত্মীয়-স্বজনের সমাগম। নতুন আত্মীয়-স্বজন ও বন্ধু-বান্ধবসহ পাড়া প্রতিবেশিদের আপ্যায়ন করতে ঘরে ঘরে খই-মুড়ি, তিলের নাডু, নারিকেল নাড়– ও হরেক ধরনের মিষ্টান্ন পরিবেশন করতে ব্যস্ত সময় পাড় করছেন পরিবারের লোকজনেরা।

এ দিকে উপজেলার বিভিন্ন পুজা মন্ডপ পরিদর্শন করেন, বানিজ্য মন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা টিপু মুন্শি এমপি। এসময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান আনোয়ারুল ইসলাম মায়া, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছাঃ উলফৎ আরা বেগম, সহকারী কমিশনার (ভুমি) জেসমিন নাহার, জেলা মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা কোম্পানী কমান্ডার সরদার আব্দুল হাকিম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এমএ হান্নানসহ আওয়ামীলীগ ও হিন্দু ধর্মাবলম্বীর বিভিন্ন স্থিরের নেতাকর্মীবৃন্দ।

সিংহের কুড়া শ্রী শ্রী কালী ও দূর্গা মন্দিরের সাধারণ সম্পাদক শ্রী রনজিৎ রায় বলেন, সমাজে যখন অশান্তির দাবানলে জ্বলছিল, অশুর যখন নিজের ক্ষমতার অপব্যাবহার করে সমাজকে অন্ধকারে নিমজ্জিত করেছিল। এমন পরিস্থিতিতে মা-দূর্গার আবির্ভাব হয়েছিল। সেই মানুষরূপী অসুরদের বধ করার জন্য। এরই ধারাবাহিকতায় উৎসব মূখোর নির্বিঘেœ শান্তিপূর্ন ভাবে সম্পন্ন হয়।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ’র উপজেলা যুগ্ন সম্পাদক উজ্জল কুমার রায় বাদল বলেন, ভ্রাতৃপ্রতীম সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির মাঝে প্রশাসনসহ সর্বস্তরের নের্তৃবৃন্দ ও স্থানীয়দের সহযোগিতায় এবারের পূজা শান্তিপূর্ণ পরিবেশে পালিত হল।

এবার উপজেলার ৬টি ইউনিয়নে মোট ৬০টি মন্ডপে শারদীয় দুর্গা পূজা অনুষ্ঠিত হয়। মন্দির গুলোতে সনাতন ধর্মাবল্বীদের নির্বিঘেœ পুজা অর্চনা করার জন্য প্রতিটি মন্ডপে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী, আনসার ভিডিপিসহ সকল প্রকার তৎপর ছিল প্রশাসন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।