শনি. জুন 25th, 2022

পদ্মা সেতুতে আলোর ঝলক

জেনারেটরের মাধ্যমে পরীক্ষামূলক কার্যক্রমের পর এবার পদ্মা সেতুর সড়কবাতি প্রজ্বলন করা হলো সরাসরি বিদ্যুৎ সংযোগের মাধ্যমে।

সোমবার (১৩ জুন) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে মাওয়া প্রান্তে একসঙ্গে প্রজ্বলন করা হয় ২০৭টি বাতি। এতে মাওয়া প্রান্তের সবকটি ল্যাম্প পোস্টে বাতি জ্বললো এই প্রথম।

রাতের আঁধারে সড়কবাতির ঝলকে আলোকিত হয়ে ওঠে ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটারের মূল সেতুর অর্ধেক অংশ।

পদ্মা সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান মো. আব্দুল কাদের এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, মুন্সিগঞ্জ পল্লি বিদ্যুৎ সমিতির দেওয়া বৈদ্যুতিক সংযোগের মাধ্যমে এই প্রথম মাওয়া প্রান্তের ২০৭টি ল্যাম্প পোস্টে বাতি জ্বালানো হয়েছে। এর আগে পরীক্ষামূলকভাবে জেনারেটরের মাধ্যমে আলো প্রজ্বলন করা হয়েছিল।


নির্বাহী প্রকৌশলী আরও জানান, বিকেল ৫টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত সড়কবাতিতে আলো জ্বালানো হয়। কাজের ধারাবাহিকতায় পুরো সেতুতে একযোগে সড়কবাতি প্রজ্বলন করা হবে।

৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ সেতুর বুকে সড়কবাতি রয়েছে ৪১৫টি। দুপাশের সংযোগ সড়কে রয়েছে আরও ২০০ বাতি। গত বছরের ২৫ নভেম্বর মুন্সিগঞ্জের লৌহজং উপজেলার মাওয়া প্রান্তে প্রথম ল্যাম্প পোস্ট বসানোর কাজ শুরু হয়। চলতি বছরের ১৮ এপ্রিল এসব ল্যাম্প পোস্ট বসানো ও এরমধ্যে বাতি লাগানোর কাজ শেষ হয়।

গত ৪ জুন বিকেলে পরীক্ষামূলকভাবে প্রথম বৈদ্যুতিক বাতি প্রজ্বলন করা হয়। ওইদিন সেতুর ১৪ নম্বর থেকে ১৯ নম্বর পিলারের মাঝামাঝিতে ২৪টি ল্যাম্প পোস্টে বাতি প্রজ্বলন করা হয়েছিল। এরপর ১১ জুন পর্যন্ত পরীক্ষামূলকভাবে ধাপে ধাপে সেতুর সবকটি বাতি জ্বালানো হয়।

সড়কবাতি ছাড়াও বর্তমানে শেষ পর্যায়ের অন্যান্য কাজের মধ্যে রোড মার্কিং, হ্যান্ড রেলিং, মুভমেন্ট জয়েন্ট প্যারাপেটের কাজ চলমান আছে।

আগামী ২৫ জুন স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরদিন ভোর ৬টা থেকে যানবাহন চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হবে পদ্মা সেতু।