বুধ. এপ্রিল 24th, 2024

ভারতের গুজরাটে নৌকা ডুবে ১২ শিক্ষার্থী, ২ শিক্ষকের মৃত্যু

ভারতের গুজরাট রাজ্যের একটি লেকে নৌকাডুবির পর অন্তত ১২ স্কুল শিক্ষার্থী ও দুই শিক্ষকের ডুবে মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় পুলিশ। 

বৃহস্পতিবার স্কুল থেকে পিকনিকে গিয়ে তারা এই শোচনীয় ঘটনার শিকার হয়। ওই দিন বিকালের দিকে শিক্ষার্থীরা ও তাদের ওই দুই শিক্ষক নৌকা নিয়ে বারোদা শহরের নিকটবর্তী হার্নি লেক পার হচ্ছিল।

পুলিশ বলেছে, “লেকটি থেকে এ পর্যন্ত ১৪টি মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।”

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, নৌকাটিতে প্রায় ২৭ জন ছিল, তাদের মধ্যে ২৩ জন শিক্ষার্থী ও চারজন শিক্ষক।

বেশ কয়েকজনকে উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার তৎপরতা চলমান আছে। এ প্রচেষ্টায় কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় দুর্যোগ কর্মকর্তারা একযোগে কাজ করছেন। 

কীভাবে নৌকাডুবির এ ঘটনাটি ঘটেছে তা পরিষ্কার হয়নি। ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত মানুষ ওঠায় নৌকাটি ডুবে গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ভারতের গুজরাটে নৌকা ডুবে ১২ শিক্ষার্থী, ২ শিক্ষকের মৃত্যু

পুলিশ কমিশনার অনুপম সিং গেহলত বিবিসিকে জানিয়েছেন, পানি থেকে এ পর্যন্ত সাতজনকে উদ্ধার করে নিকটবর্তী হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে তিনি জানান, সবাই বারোদার নিউ সানরাইজ স্কুলের শিক্ষার্থী। তাদের সবার বয়স সাত থেকে ১৩ বছরের মধ্যে। নৌকায় ওঠার পর তাদের কাউকেই লাইফ জ্যাকেট দেওয়া হয়নি।

পুলিশ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, কর্তব্যে অবহেলার দায়ে ১৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বারোদা গুজরাটের প্রধান শহর আহমেদাবাদ থেকে প্রায় ১২০ কিলোমিটার দক্ষিণপূর্বে। 

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সামাজিক মাধ্যম এক্স (সাবেক টুইটার) এ পোস্ট করা এক বার্তায় শিক্ষার্থীদের মৃত্যুতে ‘গভীর শোক’ প্রকাশ করেছেন।

গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেন্দ্র প্যাটেল জানিয়েছেন, এ ঘটনায় মৃত্যু হওয়া প্রত্যেকের পরিবারকে চার লাখ রুপি ও আহতদের ৫০ হাজার রুপি করে দেওয়া হবে।