শনি. এপ্রিল 20th, 2024

ভারতের নেমে আসা পানির ঢলে বাড়ছে নদ-নদীর পানি, বন্যার শঙ্কায় প্রশাসনের সর্তক বার্তা

স্টাফ রিপোর্টার রংপুর :


ভারতে গেট খুলে দেওয়ায় উজান থেকে বাংলাদেশ অভিমুখে ধেয়ে আসছে পানি। হঠাৎ করে নদীর পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় তিস্তা ব্যারেজের ৪৪টি জলকপাট খুলে দেওয়া হয়েছে। এতে রংপুর, লালমনিরহাট ও নীলফামারী, ও কুড়িগ্রাম জেলার তিস্তা নদীর তীরবর্তী নি¤œাঞ্চল, চর ও দ্বীপ চরে বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। নদীপাড়ের পানিবন্দী মানুষেরা গবাদী পশু, আমন বীজতলা, মৎস্য খামার নিয়ে শঙ্কায় পড়েছেন ।

জানাগেছে, রংপুর, লালমনিরহাট, নীলফামারী, কুড়িগ্রাম ও গাইবান্ধার নদী তীরবর্তী বিভিন্ন এলাকায় পানির ঢলে তিস্তা, ব্রহ্মপুত্র, ধরলা, দুধকুমারসহ রংপুর বিভাগের সব নদ-নদীর পানি বেড়েছে। তিস্তা নদীর পানি বৃদ্ধিতে কাউনিয়া উপজেলার বালাপাড়া ও টেপামধুপুর ইউনিয়নের হরিচরণ শর্মা, আজমখাঁ, হয়বত খাঁ, বিশ্বনাথের চর, চরগনাই, ঢুষমারা, চর রাজিব, গোপিঙ্গা, গদাই, পাঞ্জরভাঙ্গাসহ নদী এলাকার মানুষ পানিবন্দী শঙ্কায় পড়েছে।

এব্যাপারে কাউনিয়া উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মহিদুল হক বলেন, ভারতের বাঁধ ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় তিস্তা নদীর পানি দুপুর হতে বিপদ সীমার অনেক উপরদিয়ে প্রবাহিত হবে। তিস্তা নদীর পার্শ্ববতী এলাকার সর্বসাধারণকে সর্তক করার জন্য উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রচারণা চালিয়ে যাওয়া হচ্ছে। তিনি আরো বলেন প্রয়োজনে পার্শ্ববর্তী বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র নিকট বর্তী প্রাইমারী ও হাইস্কুলে স্থান নেওয়ার জন্য বলা হচ্ছে। পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হবে।