বুধ. এপ্রিল 24th, 2024

রংপুরে শেখ হাসিনা সেতুর উপর দিয়ে ভারী যান চলাচল সাময়িক কালের জন্য বন্ধ

স্টাফ রিপোর্টার রংপুর:

রংপুরে শেখ হাসিনা সেতুর ওপর দিয়ে আবারও ভারী যান চলাচল সাময়িক কালের জন্য বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইএনও) জহির ইমাম জানান, গত ১০ সেপ্টেম্বর কালীগঞ্জের ইউএনও কার্যালয়ে এক জরুরী সভায় সেতু দিয়ে সব ধরনের ভারী যানবাহন সাময়িক বন্ধের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

রংপুরের তিস্তা নদীর উপর গঙ্গাচড়া উপজেলায় শেখ হাসিনা সেতুর উদ্বোধন হয়েছে পাঁচ বছর আগে।গেল দেড় বছর আগে বাস-ট্রাক চলাচল শুরু হলেও সংযোগ সড়ক দুর্বল হয়ে পড়ায় এখন আবার তা বন্ধ হয়ে গেছে। নতুন করে সড়ক সংস্কার ও নির্মাণ না হওয়া পর্যন্ত আগামী বছরের জানুয়ারি পর্যন্ত গাড়ি চলাচল বন্ধ থাকবে। ভারী যানবাহন ঠেকাতে সেতুর উত্তর প্রান্তে প্রতিবন্ধক তিনটি লোহার খুঁটি বসানো হয়েছে।সেতুর ওপর দিয়ে পিকআপ, কার, মাইক্রোবাস চলাচল করতে পারবে।

জানাযায়,ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ হওয়ায় এই রুটে আগে থেকে চলা গাড়িগুলোকে এখন ৫০ কিলোমিটার পথ ঘুরে লালমনিরহাট জেলা শহর হয়ে রংপুরের কাউনিয়ার ওপর দিয়ে চলাচল করছে। আগে এ রুটে প্রতিদিন কমপক্ষে ৪‘শ পণ্যবাহী ট্রাক-বাস চলাচল করতো।সেতুটি লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার কাকিনা ইউনিয়নের রুদ্রেশ্বর এলাকার সঙ্গে রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলার লক্ষীটারি ইউনিয়নের মহিপুর এলাকাকে সড়কপথে যুক্ত করেছে। ১২৩ কোটি ৮৬ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত হয়েছে ৮৫০ মিটার দৈর্ঘ্য ও ফুটপাত সহ ৯ দশমিক ৬ মিটার প্রস্থের সেতুতে রয়েছে ১৬টি পিলার, ১৭টি স্প্যান, ৮৫টি গার্ডার।

আমদানিকারক ও ব্যবসায়ীরা বলেছেন,বুড়িমারী স্থলবন্দর থেকে আমদানি করা বিভিন্ন পণ্যের ট্রাক এখন লালমনিরহাট জেলা সদর ঘুরে রংপুরের কাউনিয়া তিস্তা সেতুর ওপর দিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে।এতে ৫০ কিলোমিটার বেশি পথ অতিক্রম করতে হচ্ছে।রংপুর থেকে বুড়িমারীর দূরত্ব প্রায় ১৪০ কিলোমিটার। গঙ্গাচড়ায় সেতুর ওপর দিয়ে এই পথ প্রায় ৯০ কিলোমিটার।এখন বুড়িমারী স্থলবন্দর থেকে রংপুর আসতে ট্রাক প্রতি অতিরিক্ত ভাড়া পড়ছে।

রংপুর এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী শাহজাহান আলী জানান, বুড়িরহাট থেকে মহিপুর পর্যন্ত সাড়ে ১০ কিলোমিটার আঞ্চলিক মহাসড়ক নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। আগস্ট মাসের শেষ সপ্তাহে ৯টি গুচ্ছে প্রায় ৩১ কোটি টাকা ব্যয়ে দরপত্র আহবান হয়েছে।