শনি. নভে. 26th, 2022

রংপুরে সংবাদকর্মীর উপর পুলিশী হামলার ঘটনায় এবার ২৪ ঘন্টা সময় বেঁধে দিলো সাংবাদিকরা

স্টাফ রিপোর্টার রংপুর :
রংপুরে শনিবার দুপুরে রংপুর প্রেসক্লাবের সামনে টেলিভিশন ক্যামেরা জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন (টিসিএ), রংপুর ও রংপুরে কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ এ কর্মসূচীর আয়োজন করে। শনিবার দুপুরে রংপুর প্রেসক্লাবের সামনে টেলিভিশন ক্যামেরা জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন (টিসিএ), রংপুর ও রংপুরে কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ এ কর্মসূচীর আয়োজন করে। মানববন্ধন সমাবেশে আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে দোষী পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিলে অবস্থান কর্মসূচীসহ বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলার ঘোষনা দেন সাংবাদিক নেতারা।


টিসিএ রংপুরের সভাপতি শাহ্ নেওয়াজ জনির সভাপতিত্বে মানববন্ধন সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, রংপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি আব্দুর রশিদ বাবু, সাধারণ সম্পাদক রফিক সরকার, রিপোর্টাস্ ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শাহ্ বায়েজিদ আহমেদ, সিটি প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির মানিক, সাংবাদিক লিয়াকত আলী বাদল, আফতাব হোসেন, জাভেদ ইকবাল, মানিক সরকার মানিক, জুয়েল আহমেদ, নাজমুল ইসলাম নিশাত, সরকার মাজহারুল মান্নান, নজরুল ইসলাম রাজু, জাহাঙ্গীর আলম বাদল, মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের নেতা শফিউল করিম শফিক, টিসিএ’র সাধারণ সম্পাদক এহসানুল হক সুমন, বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন রংপুরের সাধারণ সম্পাদক মমিনুল ইসলাম রিপন, রংপুর ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল ইসলাম জীবন, রিপোর্টাস্ ইউনিটির সংগঠক রনজিৎ দাস, মাহিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি বাবলু নাগ, তাজহাট প্রেসক্লাবের আহ্বায়ক জাকির হুসাইন। মানববন্ধন সমাবেশটি সঞ্চালনা করেন, বার্তা টুয়েন্টিফোরের স্টাফ করেসপনডেন্ট ফরহাদুজ্জামান ফারুক। মানববন্ধন সমাবেশে রংপুর প্রেসক্লাব, রিপোর্টাস্ ক্লাব, সিটি প্রেসক্লাব, টিসিএ, বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন, রংপুর ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি, তাজহাট থানা প্রেসক্লাব, মাহিগঞ্জ প্রেসক্লাব, রিপোর্টাস্ ইউনিটি, মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা অংশ নেন।


এতে বক্তারা বলেন, পুলিশ বাহিনীর তদন্ত কমিটির বেঁধে দেয়া ৭২ ঘন্টা পার হলেও এখন পর্যন্ত ইন্ডিপেনডেন্ট টিভি’র ক্যামেরাপার্সন লিমন রহমানের উপর হামলাকারী পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। এতে পুলিশ ও সাংবাদিকদের মাঝে যে সৌর্হাদ্যপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে তা ম্লান হচ্ছে। পুলিশের শীর্ষ কর্মকর্তারা মানবিক পুলিশ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। অথচ রংপুরে যে ঘটনাটি ঘটে গেল তা চরম আইন লংঘনের পাশাপাশি পুলিশের অমানবিকতা প্রকাশ পেয়েছে। প্রকাশ্যে সংঘবদ্ধভাবে পুলিশ সদস্যরা এক সাংবাদিককে পেটালো, তার ভিডিও ফুটেজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে অথচ তদন্ত করতে এত সময় কেন লাগছে তা সাংবাদিক সমাজের বোধগম্য নয়। সাংবাদিকরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল, তাই আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে তাদের তদন্ত প্রতিবেদন প্রস্তুত করে জাতির সামনে তুলে ধরাসহ দোষী পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানানো হয় মানববন্ধন সমাবেশে। অন্যথায় সারাদেশের সংবাদকর্মীরা আন্দোলন করতে বাধ্য হবে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।