সোম. জানু. 30th, 2023

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের তিন বছর পূর্তি উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলন

রংপুর সংবাদদাতা:

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ (আরপিএমপি) তিন বছর পূর্তি উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল দুপুরে নগরীর তিলোত্তমা হলরুমে সংবাদ সম্মেলন করে গৌরবের তিন বছরের কার্যক্রম ভিডিও ফুটেজ ও বিভিন্ন ডকুমেন্টারির মাধ্যমে তুলে ধরেন আরপিএমপির প্রথম পুলিশ কমিশনার আব্দুল আলীম মাহমুদ বিপিএম।

সংবাদ সম্মেলনে রংপুরের কর্মরত বিভিন্ন প্রিন্ট ইলেকট্রনিক ও অনলাইন গণমাধ্যম কর্মীদের উপস্থিতিতে পুলিশি সেবা ও আগামী দিনের কর্ম পরিকল্পনার উপর বক্তব্য দেন তিনি।

এসময় আব্দুল আলীম মাহমুদ বলেন, ‘মহানগর পুলিশ সঠিক তদন্তের মাধ্যমে অধিকাংশ মামলা নিস্পত্তি করতে সক্ষম হয়েছে।

মাদকসেবি, ব্যবসায়ী ও মাদকের যোগানদাতা এই তিন ক্যাটাগরির মানুষকে সমাজ থেকে উচ্ছেদ করতে হবে। কারণ মাদকের বিষয়ে কোন ছাড় হবেনা।’

তিনি আরও বলেন, ‘মহানগর ট্রাফিক পুলিশ ট্রাফিক আইন অমান্য করায় বিভিন্ন যানবাহন থেকে গত এক বছরে প্রায় ৬ কোটি টাকা আদায় করেছে। এছাড়াও নগর গোয়েন্দা পুলিশ বিভিন্ন এলাকায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে ৬ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করেছে।

রংপুর মেট্রোপলিটন এলাকায় পরিবহন সেক্টর থেকে চাঁদাবাজি সম্পূর্ণরূপে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। দুর্ঘটনা কবলিত মানুষের জন্য তাৎক্ষণিক চিকিৎসা সেবা দিতে একটি এমবুলেন্স সেবা চালু করা হয়েছে।

আব্দুল আলীম মাহমুদ আরও বলেন, মেট্রোপলিটন এলাকার এক লাখ মানুষের ডাটাবেজ সংরক্ষণ করা হয়েছে সেটি শতভাগ করে মানুষের সেবা নিশ্চিত করা হবে। এছাড়াও শহরের গুরুত্বপূর্ণ তিনটি স্থানে ডিজিটাল সিগনাল ট্রাফিক ব্যবস্থা স্থাপনসহ শহরকে সিসি টিভির আওতায় এনে শহরে চাঁদাবাজিসহ অন্যান্য অপরাধ অনেকাংশে কমিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে।

তিন বছর পূর্তিতেতে আব্দুল আলীম মাহমুদ আরও বলেন মহানগরের সবকটি থানা আগামী ২-৩ বছরের মধ্যে নিজস্ব ভবন ও অফিসারদের জন্য আবাসিক ভবন নির্মাণ করা হবে।

কমিউনিটি ব্যাংক সেবা ও ২৩ জন পুলিশ মুক্তিযোদ্ধার যুদ্ধকালিন স্মৃতিসম্বলিত বইটি সর্বাঙ্গনে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। আগামীকাল ১৬ সেপ্টেম্বর তিন বছর পূর্তিতে পুলিশ আর্কাইভ চালু করা হবে বলেও জানান তিনি।

শেষে তিন বছরে রংপুরে গণমাধ্যমের সহযোগিতার প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন এবং আগামীতে পুলিশি সেবায় একটি নিরাপদ সুশৃঙ্খল মহানগর গড়তে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন আব্দুল আলীম মাহমুদ (বিপিএম) ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মেহেদুল করিম, উপ-পুলিশ কমিশনার (অপরাধ) আবু মারুফ হোসেন, ডিসি ক্রাইম কোতোয়ালি জোন আলতাব হোসেনসহ মেট্রোপলিটন পুলিশের অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। এর আগে ২০১০ সালের ২৫ জানুয়ারি মন্ত্রী পরিষদের সভায় রংপুর বিভাগ অনুমোদন এবং একই বছর ৯ মার্চ প্রজ্ঞাপন জারির মাধ্যমে রংপুর বিভাগের কার্যক্রম শুরুর পর এখানে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের দাবি উঠে।

এরই ধারাবাহিকতায় ২০১৭ সালের ১০ ডিসেম্বর ১ হাজার ১৮৫টি পদ নিয়ে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কার্যক্রম শুরু হয় এবং ১৯ এপ্রিল তা গেজেট আকারে প্রকাশিত হয়। ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে জাতীয় সংসদে রংপুর মহানগরী পুলিশ বিল-২০১৮ পাস হয়। প্রায় ১০ লাখেরও বেশি জনসংখ্যা নিয়ে ২৩৯ দশমিক ৭২ বর্গ কিলোমিটার আয়তনের রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ (আরপিএমপি) এর কার্যক্রম কোতয়ালী, পরশুরাম, হাজিরহাট, মাহিগঞ্জ, হারাগাছ এবং তাজহাট এই ৬টি থানা নিয়ে শুরু হয়।