মঙ্গল. সেপ্টে. 27th, 2022

শারদীয় দূর্গাপূজা : কাউনিয়াতে ৬০টি পূজামন্ডপ

কাউনিয়া(রংপুর)প্রতিনিধি:
সমস্ত বিপদ-আপদ ও দূর্গতীনাশ করেন যিনি তিনিই দূর্গতিনাশিনী, তিনি হলেন দেবীদূর্গা। প্রতিবছর একবার শরতের শুরুতেই ব্যাপক আনুষ্ঠানিকতার মধ্যদিয়ে ধরণীতে তার আগমন ঘটে। সেই বিশ্বাস চিত্তে হিন্দুধর্মালম্বীদের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দূর্গাপূজাকে সামনে রেখে উত্তরের জেলা রংপুরের কাউনিয়ায় পূজামন্ডপ গুলোতে ব্যস্ততার সাথে চলছে প্রতিমা ও মন্দির সাজসজ্জার শেষ মূহুর্তের কাজ।

এবছর উপজেলার ৬টি ইউনিয়নে মোট ৬০টি পুজামন্ডপে সাড়ম্বরে অনুষ্ঠিত হবে এ শারদীয় দূর্গাপূজা। প্রতিটি মন্ডপেই খড়-কাদা-মাটি মিলে রংতুলির আচোঁরে নিপূন হাতে প্রতিমা ও মন্দির সাজানোর কাজে পুরোদমে তাদের ব্যস্ত সময় পার করছেন শিল্পীরা। অন্যবছরের চেয়ে এবছর ব্যয়বহুল প্রতিমা তৈরী ও সাজসজ্জার কাজ করা হচ্ছে। এসব প্রতিমা তৈরীর কাজে ন্যস্ত রয়েছে স্থানীয়রা ছাড়াও রংপুরসহ লালমনিরহাট ও কুড়িগ্রাম জেলা থেকে নিয়ে আসা কারিগররা।

প্রতিমা তৈরীর কারিগর বলাই চন্দ্র জানান, প্রতিমা তৈরীর কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। বিভিন্ন ডিজাইন ও কারুকাজের মাধ্যমে প্রতিমা তৈরী করতে সময় লাগে একমাস থেকে দেড়মাস পর্যন্ত। শেষ মূহুর্তে তাই দ্রুততার সাথে চলছে দিন-রাত পরিশ্রম। আরেক কারিগর কার্ত্তিক চন্দ্র বলেন, এখন দেখার অপেক্ষায় কার প্রতিমা কার থেকে ভালো, যদিও তা নির্ণয় করবেন মন্ডপে আসা প্রতিমা দর্শনার্থীবৃন্দরা।
উপজেলায় উল্লেখযোগ্য পূজামন্ডপ ও গুরুত্বপূর্ণ মন্দিরে নানা আয়োজনে উৎসব মূখোর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হবে শারদীয় দূর্গাপূজা। মূলতঃ দৃর্শ্যমান আনুষ্ঠানিকতায় আগামী শুক্রবার (০৪ অক্টোবর) মহা শুভষষ্ঠী পূজার মধ্যদিয়ে দূর্গতিনাশিনী দেবীদূর্গার সূচনা ঘটবে। আর মঙ্গলবার (০৮ অক্টোবর) মহা দশমীতে দেবীদূর্গার ঘোটকে চড়ে গমন বা বিসর্জনে শারদীয় দূর্গাপূজার পরিসমাপ্তি হবে।

এবারে পূজামন্ডপে কোনো ব্যতিক্রম আয়োজন না থাকলেও প্রতিমা দর্শন, পূজা-অর্চণা, নিত্য সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান রয়েছে। সবার সহযোগিতায় সমগ্র উৎসবটি সফল করতে ইতোমধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পূর্ণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ’র উপজেলা সহ-সভাপতি ক্ষুদিরাম বর্ম্মন। একই অভিব্যক্তি বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ’র উপজেলা যুগ্ন সম্পাদক উজ্জল কুমার রায় বাদল ভ্রাতৃপ্রতীম সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির মাঝে প্রশাসনসহ সর্বস্তরের নের্তৃবৃন্দ ও স্থানীয়দের সহযোগিতায় বিগত বছরের ন্যায় এবারের পূজাও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

অপরদিকে আসন্ন শারদীয় দূর্গাপূজাকে ঘিরে কঠোর অবস্থানে থাকবে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। উপজেলার ৬০টি পুজামন্ডপের মধ্যে ২২টি সাধারণ, ১১টি গুরুত্বপূর্ণ ও ২৩টি অধিকগুরুত্বপূর্ণ (৪টি রংপুর মেট্রোপলিটনস্থ হারাগাছ থানার অর্ন্তভূক্ত) পুজামন্ডপ হিসেবে চিহ্নিত করে তিন স্তরে নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কাউনিয়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিজুল ইসলাম। তিনি বলেন, নির্বিঘেœ দূর্গাপূজা উদযাপনে অপ্রীতিকর অবস্থা এড়াতে সর্বোচ্চ সতর্ক আছে থানাপুলিশ, আনসার ও ভিডিপিসহ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অন্যান্য সদস্যরা। পাশাপাশি যে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটলেই আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে জানানোর জন্য পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।