শনি. সেপ্টে. 24th, 2022

সাবেক এমপি রহিম উদ্দিন ভরসার বর্ণাঢ্য জীবনের অবসান

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ রংপুরের সাবেক এমপি ভরসা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারম্যান, দৈনিক যুগের আলোর প্রতিষ্ঠাতা, জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি আলহাজ্ব রহিম উদ্দিন ভরসার দাফন সম্পন্ন হয়েছে। গত শুক্রবার বাদ আসর হারাগাছ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে তার জানাজায় লাখো মানুষের ঢল নামে। একই মাঠে দু’বার জানাজা শেষে তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। এসময় অশ্রুসিক্ত শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় তাকে শেষ বিদায় জানান সর্বস্তরের লোকজন।


তিনি গত বুধবার দুপুরে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৫ বছর। তিনি ৫ ছেলে, ৯ মেয়ে, নাতি-নাতনিসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। দীর্ঘদিন ধরে তিনি বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। ওই দিনই বাদ এশা রাজধানীর ধানমন্ডির ৭ নম্বর রোডের মসজিদে তার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। পরে বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় দ্বিতীয় জানাজা শেষে তার মরদেহ হারাগাছে আনা হয়।


রাজধানীর বাইরে তার প্রথম নামাজে জানাজায় নিজ প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারী, রাজনৈতিক, সামাজিক-সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠনের নেতাকর্মীরা অংশ নেন। জানাজার আগে উপস্থিত নেতৃবৃন্দ এবং পরিবারের পক্ষথেকে মরহুমের কর্মময় জীবনে নানাদিক নিয়ে স্মৃতিচারণ করা হয়। রহিম উদ্দিন ভরসা ১৯৩৫ সালে রংপুরের কাউনিয়া উপজেলার হারাগাছে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা মৃত মনের উদ্দিন পাইকার ও মা নবিজন নেছা।


ছোটকাল থেকেই তিনি ব্যবসা-বাণিজ্যের সঙ্গে জড়িত ছিলেন। গড়ে তোলেন ভরসা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজসহ ৫০টির অধিক আর্থিক, সামাজিক, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য বিষয়ক প্রতিষ্ঠান। শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের শাসনামলে বিএনপিতে যোগ দিয়ে তিনি রংপুর-১০ (বর্তমান রংপুর-৪, কাউনিয়া-পীরগাছা) আসন থেকে ১৯৭৯ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।


তিনি পিপলস ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের পরিচালক ছিলেন। তিনি বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও রংপুর জেলা সভাপতি ছিলেন। এছাড়াও রংপুর চেম্বারের প্রেসিডেন্টসহ বিভিন্ন সংগঠনের সাথে জড়িত ছিলেন তিনি। তার মৃত্যুতে শোক জানিয়ে রূহের মাগফেরাত কামনা ও তার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন রাজনৈতিক, সামাজিক-সাংস্কৃতিক, সাংবাদিক ও পেশাজীবি সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষ।


আলহাজ্ব রহিম উদ্দিন ভরসা ২০০১ সালে অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আপন ছোট ভাই জাতীয় পার্টির আলহাজ্ব করিম উদ্দিন ভরসার কাছে এবং ২০০৮ সালে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী টিপু মুন্শির কাছে রংপুর-৪ আসনে নির্বাচন করে পরাজিত হন। তিনি রংপুর সদর-৩ আসন থেকেও নির্বাচনে অংশ নিয়ে পরাজিত হয়েছেন।