মঙ্গল. সেপ্টে. 27th, 2022

৮ ছিনতাইকারীকে ২ বার করে যাবজ্জীবন

হাসমত আলী মোল্লা হত্যা মামলায় বুধবার ঢাকার ৫ নম্বর  বিশেষ জজ আদালতের বিচারক মো. আখতারুজ্জামান এই রায় দেন।

দণ্ডিতরা হলেন স্বপন ওরফে রাজু, সেলিম শেখ, মো. জামাল হোসেন, আকবর, শেখ ফরিদ, মিজানুর রহমান ওরফে মিজান ওরফে মির্জা, মফিজ শেখ ও কাদির মোল্লা।

আদালতের পেশকার মোকারম হোসেন জানান, রায়ে বিচারক দণ্ডবিধির ৩৯৬ ধারায় ডাকাতির উদ্দেশ্যে হত্যার জন্য আসামিদের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন এবং ডাকাতির মাল ভোগদখলের জন্য দণ্ডবিধির ৪১২ ধারায় আবার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন।

রায়ে দণ্ডিতদের প্রত্যেককে দুটি ধারায় ৫০ হাজার টাকা করে ১ লাখ অর্থদণ্ডও করা হয় বলে এ আদালতের সাঁটলিপিকার সোহানূর রহমান জানিয়েছেন। জরিমানা দিতে ব্যর্থ হলে আসামিদের আরও দুই বছর কারাভোগ করতে হবে।

নিহত হাসমত আলী মোল্লা (৩৫) ঢাকা শহরে অটোরিকশা চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতেন। তিনি থাকতেন মুক্তিযোদ্ধা কলোনিতে।

২০০৭ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর সকালে অটোরিকশা নিয়ে বেরিয়েছিলেন হাসমত। রাতে তার লাশ পাওয়ার পর গুলশান থানায় মামলা করেন ছেলে মো. বাবু মোল্লা।

মামলার তদন্ত পর্যায়ে আসামি স্বপন, জামাল, ফরিদ ও কাদির দোষ স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দেন। তারা বলেন, অটোরিকশা ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যে তারা চায়ের সঙ্গে নেশার গুঁড়া মিশিয়ে খাওয়ানোর পর ছুরি মেরে হত্যা করেন হাসমতকে।

তদন্ত শেষে দুই বছর পর ডিবির পরিদর্শক এস এম শফিউল আজম ২০০৯ সালের ১৮ জানুয়ারি আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেন। ওই বছরের ২৭ অগাস্ট আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন হয় আদালতে।

মোট ১২ জনের সাক্ষ্য নিয়ে বুধবার রায় দিলেন বিচারক।

রাষ্ট্রপক্ষে প্রসিকিউটর শওকত আলম এবং আসামি পক্ষে মো. তারিকুল ইসলাম মামলাটি পরিচালনা করেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।