মঙ্গল. ফেব্রু. 27th, 2024

রংপুরে চাচাতো ভাইয়ের দায়ের কোপে যুবলীগ নেতা নিহত

স্টাফ রিপোর্টার রংপুর
রংপুর সদর উপজেলায় জমি নিয়ে কোন্দলের জেরে রেজাউল ইসলাম নামে এক যুবলীগ কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে চাচাতো ভাই। শুক্রবার (৮ সেপ্টেম্বর) বিকেলে সদর উপজেলার চন্দনপাট ইউনিয়নের লাহিড়ীরহাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।নিহত রেজাউল চন্দনপাট ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক নেতা ও বর্তমান রংপুর সদর উপজেলা যুবলীগের কর্মী। হত্যায় অভিযুক্ত রাব্বি তার চাচাতো ভাই। তিনি সদরের চন্দনপাট ইউনিয়নের ইউপি সদস্য রতœার ছোট ভাই।


পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বিকেলে পারিবারিক জমি সংক্রান্ত বিরোধ নিয়ে নিজ বাড়ি লাহিড়ীরহাটে আলোচনায় বসেন রেজাউলসহ চাচা ও চাচাতো ভাইবোনেরা। এ সময় রেজাউলের সঙ্গে রাব্বির বাবার বাগবিতন্ডা হয়। চাচাতো ভাই রাব্বি অতর্কিতভাবে রেজাউল ইসলামের মাথায় রামদা দিয়ে কোপ দেয়।পরিবারের লোকজন তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেন রংপুর জেলা ডিএসবির উপপরিদর্শক (এসআই) জাহাঙ্গীর হোসেন।


সদর উপজেলার চন্দনপাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আমিনুর রহমান বলেন, ঘটনাটি শুনেছি।এটা তাদের পারিবারিক দ্বন্দ।
রংপুর জেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক কামরুজ্জামান শাহীন বলেন, রেজাউল যুবলীগের একজন পরীক্ষিত ও নিবেদিত কর্মী ছিলেন। তার মৃত্যুতে আমরা একজন নিবেদিত কর্মী হারালাম।জেলা যুবলীগের পক্ষ থেকে সঠিক তদন্ত সাপেক্ষে প্রকৃত হত্যাকারীকে গ্রেপ্তার করে বিচারের দাবি জানাচ্ছি।


রংপুর জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) ইফতে খায়ের আলম জানান, এ ঘটনায় ইতোমধ্যে একজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। প্রধান অভিযুক্ত আসামী পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। নিহতের লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ বিষয়ে রংপুর কোতোয়ালী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের হয়েছে।